প্রচ্ছদ

স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে ‘তেইশ’ দলবদ্ধ ধর্ষণ

টাঙ্গাইলের সখীপুরে বিনোদনকেন্দ্র থেকে ফেরার পথে স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে (২৩) দলবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার (৩ আগস্ট) রাতে উপজেলার নয়াকচুয়া গ্রামের চাঁদেরহাট নামে এক বিনোদনকেন্দ্রের পাশের গজারিবনে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় রাতেই সখীপুর থানায় মামলা করেন ওই ভুক্তভোগী নারীর স্বামী। এতে সাতজনকে আসামি করা হয়। পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে জড়িত থাকার অভিযোগে ছয়জনকে গ্রেফতার করে। ওই ভুক্তভোগী নারী বর্তমানে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে চিকিৎসাধীন।

গ্রেফতাররা হলেন- বুলবুল আহমেদ (২৪), লাবু মিয়া (২৬), মোহাম্মদ বাবুল (৩০), আসিফ হোসেন (২৩), শফিক আহমেদ (২৫) ও মোজাম্মেল হক (৩০)। তারা সবাই জেলার সখীপুর উপজেলার কচুয়া গ্রামের দক্ষিণপাড়া এলাকার বাসিন্দা।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলার সখীপুর উপজেলার একটি গ্রামের বাসিন্দা ওই দম্পতি নয়াকচুয়া গ্রামের চাঁদেরহাট নামের একটি বিনোদনকেন্দ্রে বেড়াতে যায়। সন্ধ্যার দিকে তারা বিনোদনকেন্দ্র থেকে মূল ফটকে বেরিয়ে আসেন। এ সময় অভিযুক্তরা দুজনকে প্রেমিক-প্রেমিকা হিসেবে সন্দেহ করে পাশের একটি গজারিবনে ধরে নিয়ে যান। সেখানে তাদের প্রথমে মারধর করেন। একপর্যায়ে রাত সাড়ে ৮টার দিকে স্বামীকে বেঁধে রেখে ওই নারীকে সাতজন মিলে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন। ওই নারী অচেতন হয়ে পড়লে অভিযুক্তরা ওই স্থান ত্যাগ করেন।

সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম জাগো নিউজকে বলেন, রাত ১টার দিকে ওই দম্পতি থানায় এসে ধর্ষণের বিষয়টি জানায়। সঙ্গে সঙ্গেই ওই গ্রামে অভিযান চালিয়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়। ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত আরও একজনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। গ্রেফতার আসামিদের আজ সকালে টাঙ্গাইল আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ  স্ট্রবেরি চাষে ভাগ্য বদলের স্বপ্ন
Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *