বাংলাদেশ

ভয়াবহ হত্যাকান্ডের শিকার কেরানীগঞ্জের সাইফুল

গত শনিবার (29 July) রাত সারে এগারোটার দিকে খেজুরবাগ নুর মোহাম্মদ নুরু মিয়া স্কুলের সামনে সাইফুল (26) নামে এক যুবক কে হত্যার অভিযোগ পাওয়া যায়। পরবর্তীতে এলাকাবাসী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

স্থানীয় লোকজন হত্যার বর্ণনায় বলেন, “ঘটনার প্রধান আসামী জানে আলম (৩৬) তার দলবল সহ ক্রিকেট ব্যাট নিয়ে ঘটনাস্থলে সাইফুলের অপেক্ষা করছিল। হত্যাকাণ্ডের স্বীকার সাইফুল উপস্থিত হওয়ার সাথে সাথেই অপরাধীরা সাইফুলের উপর চড়াও হয়। প্রথমে তারা সাইফুলের হাত ও পায়ে ক্রিকেট ব্যাট দ্বারা আঘাত করতে থাকে। এক পর্যায়ে সাইফুল অবশ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে খুনীদের একজন ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে সাইফুলের মাথায় আঘাত করে।
এইভাবে প্রায় আধা ঘন্টা আঘাত করার ফলে ক্রিকেট ব্যাট টি ভেঙ্গে তিন টুকরো হয়ে যায়। আশেপাশে শতশত মানুষ দেখছিল কিন্তু কেউ অপরাধীদের বাঁধা দিতে আসেনি। সাইফুলের শ্বাস প্রক্রিয়া তখনো চলছিল বিধায় সামনে থাকা ডিমের দোকান থেকে ছুরি এবং কাটা চামচ নিয়ে সাইফুলের গলায় উপুর্যুপরি আঘাত করা হয়। অপরাধীদের একজন কাটা চামচ দিয়ে সাইফুলের চোখ তুলে ফেলে।

উক্ত হত্যাকাণ্ডে সাতজনকে এখন পর্যন্ত আসামী করে পাওয়া গিয়েছে, উক্ত আসামী: জানে আলম (৩৬), রাজন হোসেন (৩১), গর্দা সুমন (২৫), লিটন হোসেন (২৬), মোঃ দিপু (২৩), সারোয়ার আলম (২৫) ও সুমন (২৪) ‘কে ডিবি পুলিশ এবং থানা পুলিশ যৌথ অভিযানে রবিবার (30 july) গ্রেপ্তার করে রেনেসাঁ টাইমসকে জানান।

ঘটনাস্থল থেকে সরাসরি যুক্ত রেনেসাঁ টাইমসের প্রতিনিধি তোলা ছবি।
স্থানীয়রা জানায়,”ডিম দোকানদার রাজিব এই ঘটনার পরে কয়েকদিন পুলিশের ভয়ে দোকান বন্ধ রাখেন। বৃহস্পতিবার (3 August) বিকেল বেলা দোকান খোলায় ডিবি পুলিশ দোকানে ছুড়ি রাখার অভিযোগে রাজিব কে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায়।”

উক্ত হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত সকলের সঠিক ও ন্যায় বিচায় চায় ভুক্তভোগী পরিবার।

আরও পড়ুনঃ  চালুর আগেই বেঁকে গেল রেললাইন, বাড়তে পারে বাজেট
Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *