বাংলাদেশ

দেবরের ছুরিকাঘাতে ভাবী নিহত

নেত্রকোনার পূর্বধলায় পারিবারিক বিরোধের একপর্যায়ে দেবর সুজন আহমেদের (৩০) ছুরির আঘাতে ভাবি রানু আক্তার (৩৫) নিহত হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন রানুর সাড়ে তিন বছরের শিশু আলিফ আহমেদ। অভিযুক্ত দেবরকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার দুপুর ৩ আগস্ট দুপুর পৌনে ১২টার দিকে নিহতের বাড়িতে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত রানু আক্তার উপজেলার নারান্দিয়া ইউনিয়নের কুমারকান্দা গ্রামের খোকন মিয়ার স্ত্রী। আহত সাড়ে তিন বছরের শিশু আলিফ আহমেদকে নেত্রকোনা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পূর্বধলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম রেনেসাঁ টাইমসকে জানান, বেশ কিছু দিন ধরে খোকন মিয়ার সাথে তার ভাইয়ের পারিবারিক বিরোধ চলছিল। এর কারণে দুপুরের দিকে বাড়িতে তর্ক-বিতর্কের একপর্যায়ে ভাবি রানু আক্তারকে ছুরি দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করে সুজন। এতে ঘটনাস্থলেই রানু আক্তার মারা যান। এসময় রানু আক্তারের সাথে থাকা শিশু সন্তান আলিফও আহত হয়।

তিনি বলেন, ঘটনার পরপরই সুজনকে আটক করা হয়। এছাড়া লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে নেত্রকোনা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। তদন্ত শুরু হয়েছে। থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান ওসি।

আরও পড়ুনঃ  মানুষ এখন হেলিকপ্টারে গ্রামে যায়: মতিয়া চৌধুরী
Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *