আন্তর্জাতিক

গাজ্জায় গণহত্যা বন্ধ ও রাফাহ বর্ডার খুলে দেওয়ার দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

এস এম সাইফুল ইসলাম: ইহুদিবাদী সন্ত্রাসীদের অবৈধ রাষ্ট্র ইজরাইল কর্তৃক ফিলিস্তিনের গাজ্জায় অব্যাহত গণহত্যা বন্ধ ও রাফাহ বর্ডার খুলে দেয়ার দাবীতে মানববন্ধন করেছে আন্তর্জাতিক কুদস সপ্তাহ বাংলাদেশ বাস্তবায়ন কমিটি।

আজ শুক্রবার (২ ফেব্রুয়ারী) বা’দ জুমা বাইতুল মোকাররমের দক্ষিণ গেইটে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশগ্রহণ করেন ফিলিস্তিনের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বে বিশ্বাসী সর্বস্তরের তোহিদী জনতা।

অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে ঢাকা কলেজের মেধাবী শিক্ষার্থী আরিফ হোসাইনের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন আন্তর্জাতিক কুদস সপ্তাহের বাংলাদেশ এম্বাসেডর, ফিলিস্তিন উলামা পরিষদের বাংলাদেশী কো-অর্ডিনেটর ও তুরস্কের ইয়ালোভা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থী মুহাইমিনুল হাসান রিয়াদ।

তিনি বলেন, আপনারা জানেন ফিলিস্তিনে অভিবাসী হিসেবে আশ্রিত এই কালপ্রিট জাতি কিভাবে সাম্রাজ্যবাদী অপশক্তির কালো হাত ধরে অবৈধ ইজরায়েলী রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করেছে। শুধু অবৈধ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় ক্ষান্ত হয়নি। প্রতিনিয়ত ফিলিস্তিনের বসত বাড়ি দখল, গুম,খুন,গণহত্যা নির্যাতনের স্ট্রিমরুলার চালিয়ে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, ইজরায়েলী এই বর্বরতাকে কোন সভ্য সমাজের ব্যক্তিরা সমর্থন দেয়নি। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহান স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশকে প্রদত্ত ইজরায়েলী স্বীকৃতিকে প্রত্যাখ্যান করে ফিলিস্তিনের প্রতি নৈতিক সমর্থন ব্যক্ত করে এবং ফিলিস্তিন এম্বাসী চালুর আহবান করেন।

মুহাইমিনুল হাসান রিয়াদ বলেন, সময়ের সাথে সাম্রাজ্যবাদী অপশক্তির চাপে নতুন করে কিছু দেশ ইজরাঈলকে স্বীকৃতি দিতে থাকে। বিগত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ডীল অব সেঞ্চুরীর নামে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতা ইজরাইলের থাবায় বিলিয়ে দেওয়ার ষড়যন্ত্র করে। দুঃখজনকভাবে কয়েকটি আরব রাষ্ট্রও সেই ষড়যন্ত্রে পা দিয়ে ইজরাইলকে স্বীকৃতি দেয়। এভাবে অন্যন্য দেশেও সাম্রাজ্যবাদী অপশক্তি বিভিন্ন দেশ ও ব্যক্তিদের উপর চাপ তৈরি করছে।

জাতীয় সংসদে ফিলিস্তিনের পক্ষে থাকার ঘোষণা দেয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, দুর্ভাগ্যজনকভাবে বাংলাদেশের পাসপোর্ট থেকে গর্ব করার মত দুটি শব্দ “এক্সেপ্ট ইজরাঈল” কে সরিয়ে ফেলা হয়েছে। অতিশীঘ্রই বাংলাদেশ পাসপোর্টে এক্সেপ্ট ইজরাইল শব্দটি পুনর্বহাল করা হোক।

আরও পড়ুনঃ  ধর্ষণের শিকার বাবার সহকর্মীদের কাছে দুই বোন

এসময় বাংলাদেশ সরকারকে জাতীয় শিক্ষাকার্যক্রমের পাঠ্যপুস্তকে মুসলমানদের প্রথম কিবলা মাসজিদে আকসা ও জেরুজালেমের ইতিহাসকে অন্তর্ভূক্ত করার দাবী জানান তিনি।

রিয়াদ বলেন, গত (২৫ জানুয়ারী) ২০২২, কক্সবাজারে জাতীয় হিন্দু মহাজেটের একটি দ্বিবার্ষিক সম্মেলনে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় মহাসচিব এড. গোবিন্দ চন্দ্র প্রামাণিক, জেরুজালেমের টেম্পল মাউন্ট তথ্য মাসজিদে আকসাকে হিন্দুদের মন্দির দাবী করে এক কাল্পনিক, উদ্ভট, অবাস্তব ও অসত্য বক্তব্য দিয়ে মাসজিদে আকসা পুনরুদ্ধারের মিশন-ভিশন সম্পর্কিত শপথ নেন।

তিনি আরও বলেন, আমরা বাংলাদেশে এমন ঘৃণ্য ষড়যন্ত্রমূলক বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই এবং এটিকে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রনীতি ও রাষ্ট্র বিরোধী এক গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে মনে করি, তারা এই অসত্য বক্তব্য দিয়ে বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের নীল নকশা তৈরি করছে। তাই এই মর্মে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার সজাগ দৃষ্টি কামনা করছি এবং প্রশাসন ও গেয়েন্দা সংস্থাকে এ বিষয়ে তদন্তসহ এড. গোবিন্দ চন্দ্র প্রামানিককে নজরদারীর আওয়াতায় আনার জোর দাবী জানাচ্ছি।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *